রোহিঙ্গা মানবিক সংকটে কক্সবাজারের নারীদের ত্যাগ-অবদানের স্বীকৃতি প্রদানের উদ্যোগ

0

রোহিঙ্গা মানবিক সংকটে কক্সবাজারের নারীদের ত্যাগ-অবদানের স্বীকৃতি প্রদানের উদ্যোগ
আজ, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ওয়ার্ল্ড হিউম্যানিটারিয়ান ডে উপলক্ষে কক্সবাজার সিএসও এনজিও ফোরাম (সিসিএনএফ) আয়োজিত সংলাপে রোহিঙ্গা সংকটে মানবিক সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে কক্সবাজারের নারীদের অবদানকে স্বীকৃতি প্রদান করা হবে। বিআইএএম মিলনায়তন, ঝিনুক মার্কেট, কক্সবাজারে ১০.০০ থেকে ১৩.০০ পর্যন্ত সময়ে এই সংলাপ অনুষ্ঠিত হবে। সংলাপে শরণার্থী, ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার জনাব আবুল কালাম প্রধান অতিথি হিসাবে অংশ নেবেন এবং এতে জাতিসংঘের বিভিন্ন অংগসংস্তার প্রতিনিধিবৃন্দও অতিথি হিসিবে উপস্থিত থাকবেন। স্থানীয় এনজিও-এর প্রায় ৪০০ নারী মাঠকর্মী এবং স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের প্রায় ২০ জন নির্বাচিত নারী নেতৃবৃন্দ এতে অংশ নেবেন বলে আশা করা হচ্ছে। অনুষ্ঠানে মুক্তি কক্সবাজারের কর্মী রোজিনা আক্তারকেও বিশেষভাবে স্মরণ করা হবে, তিনি ১৫ জুলাই ২০১৮ এ রোহিঙ্গা শিবিরে যাওয়ার পথে একটি সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গিয়ে়ছিলেন। সংলাপ উপলক্ষে আয়োজকদের পক্ষ থেকে ইংরেজি এবং বাংলায় একটি অবস্থানপত্র তৈরি করা হয়েছে, যেখানে রোহিঙ্গা নারীদের তিনটি বড় সমস্যা চিহ্নিত করা হয়েছে যথা: বাল্য বিবাহ, স্বাস্থ্য সমস্যা এবং ভবিষ্যত বিষয়ে হতাশা।

আয়োজকদের পক্ষ থেকে কক্সবাজারের নারীদের প্রতি রোহিঙ্গা সংকট মোকাবেলায় এগিয়ে আসার অহ্বান জানানো হয়, যেমনটা তাঁরা সবার আগে করেছিলেন যখন রোহিঙ্গারা কক্সবাজারে আশ্রয় নিতে শুরু করে। তারা মানবতা রক্ষায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবদান, উদ্যোগ ও চেতনাকেও স্মরণ করিয়ে দেন়। আযোজকদের পক্ষ থেকে এই বিষয়ে ়দুটি দাবি উত্থাপন করা হয়েছে: (ক) মানবিক সহায়তায় সম্পৃক্ত স্থানীয় এনজিও কর্মীদেরকে মানবিক সহায়তা কাজে কর্মরত অবস্থায় দুর্ঘটনা বা অন্য কোনো বিপদে আক্রান্ত স্থানীয় এনজিও কর্মীদের অংশীদারদের কমীদের সমান ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করতে হবে, নারী মাঠকর্মীদেরজন্য বীমা সুবিধাসহ সমান নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে অংশীদারদের উদ্যোগ নিতে হবে। (২) যেহেতু রোহিঙ্গা সংকটকে আপাতত একটি দীর্ঘমেয়াদী সংকট হিসেবেই মনে হচ্ছে, মানবিক সাড়াপ্রদান কার্যক্রমে স্থায়িত্বশীলতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে রোহিঙ্গা সংকট মোকাবেলায় স্থানীয় এনজিও এবং স্থানীয় সরকারকে গুরুত্ব দিতে হবে এবং নেতৃত্বের অবস্থানে নিয়ে আসতে হবে।

এই বিষয়ে বিস্তারিত জানা যাবে এই দুটি ওয়েবসাইটে: www.cxb-cso-ngo.org এবং www.coastbd.net.

Share.

Leave A Reply